রিজার্ভ চুরির ঘটনায় সংসদে সরকারদলীয় সদস্যের ক্ষোভ

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে টাকা চুরির ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সরকারী দলের সংসদ সদস্য অধ্যাপক আলী আশরাফ।মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে আলী আশরাফ এ কথা বলেন।তিনি বলেন, ব্যাংকের রিজার্ভ থেকে টাকা চুরি হয়ে গেল। আজ পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকেও জবাবদিহিতার আওতায় আনা হলো না। এটা দুঃখের বিষয়। মানুষ আমাদের প্রশ্ন করে।

অর্থমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি আরও বলেন, ঋণ আদায়ের যত প্রক্রিয়া আছে সব প্রয়োগ করুন। দুর্ঘটনাক্রমে কেউ ঋণখেলাপি হলে একটা কথা থাকে।‘কিন্তু ইচ্ছাকৃতভাবে ঋণখেলাপি করলে তাদের ধরতে হবে। কেউ খেলাপি ঋণের টাকা দেশ থেকে পাচার করলে সেটা যদি ধরা পড়ে, তাহলে তারও রেহাই নেই।’এজন্য ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনায় জোরালো তদারকি দরকার।

অধ্যাপক আলী আশরাফ বলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ওপর নানাভাবে প্রশ্ন আসতে পারে। ব্যাংক থেকে রিজার্ভ চুরি হয়ে গেছে।‘অথচ আজ পর্যন্ত বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে জবাবদিহিতার আওতায় আনা হলো না, এটা দুর্ভাগ্যজনক। এটা জনগণের টাকা। ব্যাংকের নিশ্চয়তা কে দেয়? রাষ্ট্র। তাই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে হবে।’তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রী বলেছেন- উপজেলা পর্যায়ে কর আদায়ের জন্য কর কর্মকর্তা নিয়োগ দেবেন। এখনও পর্যন্ত দফতরও নেই, কর্মকর্তাও নেই। কবে আদায় করবেন ট্যাক্স? দেশ থেকে নানাভাবে অর্থপাচার হয়েছে। আশা করি, অর্থ পাচার রোধে ইস্পাত কঠিন সংকল্প নিয়ে আগাবেন।