আল-আকসা মসজিদে ইহুদিদের হামলায় রক্তাক্ত মুসল্লিরা!

ইসরায়েলি পুলিশ ও ফিলিস্তিনি মুসল্লীদের মধ্যে সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে আল আকসা মসজিদ। এর আওতার একটি অংশকে নিজেদের পবিত্র স্থান ‘টেম্পল মাউন্ট’ হিসেবে দাবি করে থাকে ইহুদিরা। খবর বিবিসির।

জানা গেছে, ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে শত শত ইহুদি রোববার আল-আকসা মসজিদে ঢুকে পড়ে। ফলে আল-আকসা মুসল্লিদের মধ্যে উত্তেজনা ও আতঙ্কের সৃষ্টি হয়। এ সময় ইসরায়েলি পুলিশও মুসলিমদের ওপর হামলা চালায়।

ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের লক্ষ্য করে টিয়ার গ্যাস শেল নিক্ষেপ করে ইসরায়েলি বাহিনী। এ ছাড়া বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনিকে আটক করে। এর আগে গত সোমবার সশস্ত্র বাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে ইহুদিরা আল-আকসায় প্রবেশ করেছিল। সেদিন তারা জেরুজালেম দিবসকে সামনে রেখে ২ জুন আবার মসজিদে ফিরে আসার ঘোষণা দেয়।

গেল ৩০ বছরের মধ্যে এই প্রথম পবিত্র রমজান মাসে ইহুদিদের পবিত্র আল-আকসা মসজিদে প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হয়।

জেরুজালেমের পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মসজিদের ভেতর বিক্ষোভকারীরা নিজেদের অবরোধ করে রাখে এবং ইসরায়েলি বাহিনীকে লক্ষ্য করে চেয়ার ও পাথর ছুড়তে থাকে। মুসলিম ওয়াকফ সংগঠন জানায়, ফিলিস্তিনিদের ওপর পুলিশ রাবার বুলেট ও মরিচ স্প্রে ব্যবহার করেছে। এ ছাড়া দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২ জুন জেরুজালেম দিবস নামে পরিচিত। ১৯৬৭ সালের এই দিনে আরব-ইসরায়েল যুদ্ধ শেষ হয়। ওই যুদ্ধে জয়ী হয় ইসরায়েল। তাই প্রতি বছর ইসরায়েল দিনটি জেরুজালেম দিবস হিসেবে উদযাপন করে থাকে।