বিএনপিকে‘সংকট উত্তরণের’ দিকনির্দেশনা দিলেন এমাজউদ্দীন আহমেদ

বর্তমান রাজনৈতিক সংকটময় সময় থেকে উত্তরণের জন্য বিএনপির নেতৃবৃন্দকে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড:এমাজউদ্দিন আহমেদ।

বিএনপি শীর্ষ নেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘বর্তমান সময়ে বিএনপির এই সংকটময় অবস্থা কাটিয়ে ওঠার জন্য নেতাকর্মীদের সাহসী পদক্ষেপ নিতে হবে। স্থায়ী কমিটির যারা আছেন এই কয়জনে সীমাবদ্ধ না রেখে ভাইস চেয়ারম্যানদের সম্পৃক্ত কর‌তে পা‌রেন। তা‌দের সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারেন। উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য যারা আছেন তাদেরকে সম্পৃক্ত করতে পারেন। তাদের নি‌য়ে আলোচনায় বস‌তে পারেন। এমনকি যুগ্ম মহাসচিব যারা আছেন তাদের নিয়েও আলোচনায় বসতে পারেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আগে নিজেরা নিজেরা বসে একত্রিত হয়ে তারপর বাইরে বের হতে হন। শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানও একই কাজ করতেন। নিজেদের মধ্যে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করে তারপর জনগণের কাছে যেতেন এবং জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে তিনি সফলতা পেতেন।’

শনিবার (১ জুন) বিকেলে রাজধানীর শিশুকল্যাণ মিলনায়তনে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৮তম শাহাদৎবার্ষিকী উপলক্ষে জিয়া নাগরিক ফোরাম (জিনাফ) আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।

এমাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আপনাদের ভবিষ্যৎ উজ্জ্বল, এর জন্য আর কারও দরকার নেই। আগে নিজেরা ঐক্যবদ্ধ হোন, তারপর জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করেন। দেখবেন সফলতা পাবেন।’

‌তি‌নি ব‌লেন, ‘দেশের জনগণ আগ্রহী হয়ে বিএনপির নেতৃবৃন্দদের দিকে তাকিয়ে আছে। কিন্তু এই নেতৃবৃন্দ জনগণের দিকনির্দেশনা দিতে পারছে না।’

সংগঠন করে আন্দোলন নয় আন্দোলনের মধ্য দিয়ে সংগঠন করতে হয় – বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদুর এ কথার সঙ্গে সহমত পোষণ করে এমাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘উনি (দুদু) ঠিকই বলেছেন, আন্দোলন ছাড়া সংগঠন শক্তিশালী ও মজবুত হয় না।

আন্দোলনের মধ্য দিয়েই একটি সংগঠন গঠন করতে হয়।’
শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান সব সময় বলতেন- ‘যখন কোন বিপদে আপদে পড়বা তখন গ্রামগঞ্জে তৃণমূল মানুষদের কাছে ছুটে যাবা, তাদেরকে একত্রিত করবা ঐক্যবদ্ধ করবা, তাহলেই সফলতা পাবে’।’

আয়োজক সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কে এ জামানের সভাপতিত্বে এবং কর্মজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক আলতাফ হোসেন সরদারের সঞ্চালনায় ইফতার ও দোয়া মাহফিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও কৃষক দলের আহ্বায়ক শামসুজ্জামান দুদু, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ডেমোক্রেটিক লীগের সভাপতি সাইফুদ্দিন মুনির, কৃষক দলের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ ।