ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে সমর্থকদের যে বার্তা দিলেন মাশরাফি

বিশ্বকাপে নিজেদের মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে আফগানিস্তানকে ৬২ রানের ব্যবধানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। দুর্দান্ত জয়ের পর মাঠের দর্শক ও সাকিব আল হাসানের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। পরবর্তী ম্যাচগুলোতেও এ ধারা বজায় রাখার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি সেমিফাইনালে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটি জিততেই হতো বাংলাদেশকে। সাকিব-মুশফিকদের কল্যাণে কাজটি সহজেই করেছেন টাইগাররা। বাংলাদেশের পরের দুটি ম্যাচ ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে। স্বপ্নপূরণ করতে হলে সেই দুটি ম্যাচে জয় পেতেই হবে তাদের।এবারের বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পাওয়া আগের দুটি ম্যাচেও সেরা খেলোয়াড় হন সাকিব। এ ম্যাচেও সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। জয়ে বড় অবদান আছে মুশফিকেরও। মিস্টার ডিপেন্ডেবল খেলেন ৮৩ রানের দায়িত্বশীল ইনিংস। এ ছাড়া তামিম ও মাহমুদউল্লাহ খেলেন ক্যামিও। সবার প্রশংসা ঝরেছে মাশরাফির কণ্ঠে।

ম্যাচশেষে পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে বাংলাদেশ অধিনায়ক বলেন, টুর্নামেন্টে শুরু থেকেই দারুণ সমর্থন দিচ্ছেন সমর্থকরা। সাকিবও প্রতিটি ম্যাচে অসাধারণ খেলছে। সে নিয়মিত রান করছে। দলের প্রয়োজনে উইকেট শিকার করছে। এদিন সাকিব ও মুশফিকের জুটিটি খুব বড় ছিল না। তবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল। তামিম-রিয়াদের ইনিংসও কার্যকরী ছিল।

ব্যাটিং করার সময় বেশ অস্বস্তিতে ভোগেন মাহমুদউল্লাহ। মাঠেই চিকিৎসক ডেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন তিনি। তবে পরে ফিল্ডিং করতে নামেননি। তার ইনজুরি নিয়ে ম্যাশ বলেন, ফিজিও তাকে পরে আবারও দেখবে। আমাদের পরবর্তী ম্যাচ গড়াতে এখনও এক সপ্তাহ বাকি। আশা করছি, এর আগেই সুস্থ হয়ে ফিরবে সে। এখন সমর্থকদের শুধু এটুকুই বলতে পারি, আমরা আমাদের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করব (ভারত ও পাকিস্তানের বিপক্ষে)।আফগানদের বিপক্ষে দুর্দান্ত জয়ে সাত ম্যাচে তিনটি করে জয়-পরাজয় ও ১ পরিত্যক্তে ৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে মাশরাফি বাহিনী। বাকি দুই ম্যাচে জয় পেলেই সেমির স্বপ্নপূরণ হবে তাদের। ২ জুলাই হট ফেভারিট ভারত এবং ৫ জুলাই আনপ্রিডেক্টেবল পাকিস্তানের মোকাবেলা করবেন তারা।