শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন, নগ্ন অবস্থাতেই থানায় গেলেন গৃহবধূ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- স্বামীর অবর্তমানে শাশুড়ি ও ননদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ। মারধর করে ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে পোশাক। অবশেষে নগ্ন অবস্থাতেই থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন সেই গৃহবধূ।

ওই অবস্থায় তাঁকে দেখে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি কেউ। বরং পকেট থেকে মোবাইল ফোন বার করে গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করলেন রাস্তার লোকজন।

রোববার ভারতের রাজস্থানের চুরু জেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের শিকার ওই মহিলা আদতে মহারাষ্ট্রের আকোলার মেয়ে। বিয়ের পর চুরুর বিদসর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি চলে আসেন।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার স্বামী পেশায় দিন মজুর। কর্মসূত্রে অসমে থাকেন তিনি। তাঁর অনুপস্থিতিতে শাশুড়ি ও ননদ মিলে ওই মহিলার উপর নির্যাতন চালান। রোববার ঝগড়া বাধলে ওই মহিলাকে মারধর করা হয়। ছিড়ে দেওয়া হয় পড়নের শাড়ি-ব্লাউজও। তাতেই মাথা ঠিক রাখতে পারেননি তিনি। সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থাতেই থানার উদ্দেশে বেরিয়ে পড়েন।

সুজনগড় থানায় শাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন ওই মহিলা। বর্তমানে পুলিশি নিরাপত্তাতেই রয়েছেন তিনি।

বিদাসার পুলিশের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, থানায় পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় গৃহবধূকে ঘিরে ধরে তামাশা করতে থাকেন এলাকার লোকজন। থানায় ঢোকার মুখেও তাকে হেনস্থা করার চেষ্টা করেন কয়েক যুবক। মহিলার ভিডিও তোলা হয়।

পুলিশ কর্তার কথায়, ‘‘বিধ্বস্ত অবস্থায় সাহায্যের জন্য থানায় ছুটে এসেছিলেন গৃহবধূ। সারা শরীরে ছিল দগদগে ক্ষত চিহ্ন। অবাক লাগে শুধু ছেলেরা নয়, মহিলারাও তাঁকে এই অবস্থায় দেখে কটূক্তি করতে ছাড়েননি। শ্বশুরবাড়ির লোকজন শুধু নয়, যাঁরা সেদিন তাঁর ভিডিও তুলেছিলেন সকলকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে।’’