ঢাকা, আজ বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মালয়েশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি নির্বাচিত হলেন বাংলাদেশি হাফেজ বশির

প্রকাশ: ২০১৯-১২-২০ ১৩:১৮:৫৩ || আপডেট: ২০১৯-১২-২০ ১৩:১৮:৫৩

মালয়েশিয়ার অন্যতম বৃহৎ বিশ্ববিদ্যালয় মাসা ইউনিভার্সিটির ‘স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল’ (এসআরসি) নির্বাচনে ভাইস প্রেসিডেন্ট (ভিপি) পদে নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থী হাফেজে কোরআন বশির ইবনে জাফর। ২০২০ সেশনের জন্য অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বশিরসহ মোট নয়জন।বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আট প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে ৬৮৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন বাংলাদেশি এই শিক্ষার্থী।মালয়েশিয়ার প্রধান প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ডাকসুর মতো স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল (এসআরসি) নির্বাচনের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য প্রেসিডেন্ট পদটি সংরক্ষিত রেখে বাকি আরও আটটি পদ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এই এসআরসি নির্বাচনের আয়োজন করে।বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রকৌশল বিভাগে অধ্যয়নরত বশির ইবনে জাফরের বাড়ি কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়। কওমি মাদরাসা ও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি কোরআনে কারিমের হাফেজ। রাজধানীর দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাসের পর স্কলারশিপ নিয়ে মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা করতে যান তিনি।

জুমা শেষে উত্তাল দিল্লি জামে মসজিদ, ভীম সেনা প্রধান আটক

ভারতের বিতর্কিত ও মুসলিমবিরোধী নাগরিক আইনের প্রতিবাদে পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে শুক্রবার বাদ জুমা বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে দিল্লি জামে মসজিদ প্রাঙ্গণ।পুলিশের বাধাকে উপেক্ষা করেই ভীম সেনা প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদ দিল্লি জামে মসজিদ এলাকায় ওই বিক্ষোভের নেতৃত্ব দেন। বিক্ষোভকে ঘিরে এলাকায় চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।মসজিদের মূল ফটকের কাছে সংবিধানের প্রতিলিপি হাতে বিক্ষোভে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে শোনা যায় ভীম সেনা প্রধান চন্দ্রশেখরকে। পরে আটক করা হয় তাকে।এদিকে গোটা এলাকায় ড্রোন ক্যামেরা দিয়ে নজরদারি চালাচ্ছে দিল্লি পুলিশ। জুমা মসজিদ, চাওরি বাজার এবং লাল কেল্লা মেট্রো স্টেশনগুলিতে ঢোকা ও বেরোনোর দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং ট্রেনগুলি সেখানে থামবে না, জানিয়েছে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন (ডিএমআরসি)।

ইমরান খান না এলেও মাহাথিরের ডাকে সাড়া দিলেন এরদোগান

সৌদি আরবের চাপে শেষ পর্যন্ত ‘কুয়ালালামপুর সামিটে’ অংশ নিচ্ছেন না পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। যদিও সম্মেলনে অংশ নিতে এরই মধ্যে মালয়েশিয়া পৌঁছেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়্যেপ এরদোগান। এরদোগান প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মাদ ছাড়াও ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে তার বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) রাতে প্রেসিডেন্ট এরদোগান আঙ্কারা থেকে কুয়ালালামপুর পৌঁছান। চারদিনের এ সম্মেলনে মুসলিম বিশ্বের সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মতবিনিময় করা হবে।

সম্মেলনে ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলে সানি ছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জুকো উইদোদোও অংশ নিচ্ছেন।গত ১৮ ডিসেম্বর শুরু হওয়া ‘কুয়ালালামপুর সামিট-২০১৯’ চলবে আগামী ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এবার সম্মেলনটির এজেন্ডা হিসেবে নির্ধারিত হয়েছে- উন্নয়ন ও সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা ও সুশাসন, ন্যায়বিচার ও স্বাধীনতা, সংস্কৃতি ও পরিচয়, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, শান্তি-সুরক্ষা ও প্রতিরক্ষা এবং প্রযুক্তি ও ইন্টারনেট ব্যবস্থাপনার মতো সাতটি বিষয়।এ দিকে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠেয় এই সম্মেলনে অংশ নিতে না পারার কথাটি চিঠির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী মাহাথিরকে জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মঙ্গলবার (১৭ ডিসেম্বর) মালয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরথেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

বিশ্লেষকদের মতে, সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে চলতি সপ্তাহে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। মূলত এর পরপরই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে সম্মেলন বাতিলের সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়। চলতি বছরের মে মাসের পর থেকে এখন পর্যন্ত এই দুই নেতা টানা চারবার সাক্ষাৎ করেছেন।অপর দিকে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে শুরু হওয়া এই সম্মেলনে সৌদি আরবকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। বৈঠকে বিশ্বের মোট ৫২টি রাষ্ট্রের প্রায় চার শতাধিক মুসলিম নেতা ও বুদ্ধিজীবীরা উপস্থিত থাকবেন।পাক প্রধানমন্ত্রীর এই সফর বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রধানমন্ত্রী মাহাথির বলেছেন, ‘এটা তার (ইমরান খান) পছন্দ। আমরা কখনোই তাকে জোর করতে পারি না। কেননা ইসলামে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। ব্যক্তিগত কোনো কারণে তিনি হয়তো আসতে পারছেন না।’

এবার একসঙ্গে ইসরায়েলে হামলা চালাবে হামাস ও ইসলামিক জিহাদ

ফিলিস্তিনের ইসলামিক জিহাদ এবং প্রতিরোধ সংগঠন হামাস ইসরায়েল বিরোধী হলেও দুটি সংগঠন আগে কখনোই এক হয়নি।সবসময় আলাদাভাবে সংঘর্ষে জড়িয়েছে তারা। এমনকি মাঝেমধ্যেই ইসলামিক জিহাদের সমালোচনাও করত হামাস।অবশেষ নিজেদের মধ্যকার দূরত্ব ভুলে এক হতে যাচ্ছে ফিলিস্তিনি এই দুই সংগঠন। ইসরায়েলে হামলার লক্ষ্যে তারা এক হচ্ছে বলে যানা গেছে।ফিলিস্তিনি ইসলামিক জিহাদের (পিআইজে) সাধারণ সম্পাদক জিয়াদ আল নাখলাহ বলেছেন, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে পরবর্তী যুদ্ধে এক হয়ে লড়বে হামাস-পিআইজে।জেরুজালেমভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য জেরুজালেম পোস্ট জানায়, ইসরায়েলের সঙ্গে পরবর্তী যুদ্ধে একসঙ্গে লড়বে ইসলামিক জিহাদ ও হামাস। বৃহস্পতিবার পিআইজে-এর সাধারণ সম্পাদক জিয়াদ আল নাখলাহ এই তথ্য জানান।ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে এরই মধ্যে চুক্তি করেছে হামাস ও ইসলামিক জিহাদ।

এ সম্পর্কে জিয়াদ আল নাখলাহ বলেন, আমরা একটি চুক্তি করেছি। এই চুক্তির আওতায় ইসরায়েলের যে কোনো হামলার জবাব যৌথভাবে দেওয়া হবে। তিনি ইসরায়েলকে সতর্ক করে বলেন, ইসরায়েল গাজা উপত্যকায় কোনো হামলা চালালে তার জবাব না দিয়ে ছাড়া হবে না।

দুইশত প্রতিযোগীকে হারিয়ে তুরস্কে প্রথম হলেন বাংলাদেশি তরুণ হাসান কবির

ইসলামিক কো-অপারেশন ইয়ুথ ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত “আইসিওয়াইএফ রমজান ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতায় ২০১৯”-এ প্রথম স্থান অর্জন করেছেন বাংলাদেশি তরুণ মুহাম্মদ হাসান কবির।তিনি বিভিন্ন মুসলিম দেশের প্রায় দুইশত প্রতিযোগীর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে দেশের জন্য এ সম্মান বয়ে এনেছেন। মুহাম্মদ হাসান কবির বর্তমানে তুরস্কের সেলজুক বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবংজনপ্রশাসন বিষয়ে অধ্যয়রত মুহাম্মদ হাসান কবির লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি নারিশ্চা গ্রামের আল্লামা ফৌজুল কবিরের পুত্র। লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান এম. ইব্রাহিম কবির ওমরক্কোর আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় আগাদীর’র আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের পরিচালক ও সহকারী অধ্যাপক এবং গ্লোবাল পীস প্লানেট (জিপিপি)-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মাহীর ছোট ভাই।মুহাম্মদ হাসান কবির বলেন, ‘আইসিওয়াইএফ রমজান ফটোগ্রাফি প্রয়োগিতায় ২০১৯’-এ প্রথম স্থান অর্জন করায় মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এছাড়াও যারা দোয়া ও সমর্থন করেছেন তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানাই।