ঢাকা, আজ বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

এবার যুক্তরাষ্ট্র জয় করলেন বাংলাদেশী বিজ্ঞানী ডা. আরিফ

প্রকাশ: ২০১৯-১২-২০ ১৩:৩১:১৫ || আপডেট: ২০১৯-১২-২০ ১৩:৩১:১৫

জাপানের পর এবার যুক্তরাষ্ট্রে বিশেষ সম্মাননায় ভূষিত হচ্ছেন বাংলাদেশী বিজ্ঞানী ডা. আরিফ হোসেন। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে অনুষ্ঠিতব্য ওয়ার্ল্ড সিম্পোজিয়ামে সারা পৃথিবী থেকে ১১ জনকে বাছাই করা হয়েছে সেরা তরুণ বিজ্ঞানী হিসেবে। এর মধ্যে দুইজন বৃটিশ, সাতজন আমেরিকান, একজন ডেনমার্ক এবং একজন জাপানিজ বিজ্ঞানী।রোববার এ খবর প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা ভিত্তিক গবেষণা বিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডসিম্পোজিয়া।পুরস্কারপ্রাপ্ত আলোচিত ওই জাপানিজ বিজ্ঞানী হলেন টোকিও’র জিকেই মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র রিসার্চার বাংলাদেশি ডা. মোহাম্মদ আরিফ হোসেন। তিনি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার কৃতী সন্তান। এর আগেও তিনি গবেষণার জন্য একাধিক আন্তর্জাতিক পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।

ডা. আরিফের পরিবারে আরও যারা আলোচিত ডা. আরিফ হোসেন গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীর ভাটিয়াপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। ১১ ভাইবোনের মধ্যে ডা. আরিফ হোসেন সবার ছোট। তিনি এসএসসি পর্যন্ত গ্রামের স্কুলে পড়াশোনা করেন। তারপর ঢাকার মিরপুর বাঙলা কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে ভর্তি হন। সেখান থেকে প্রথমে এমবিবিএস পাস করে একই প্রতিষ্ঠান থেকে শিশু বিভাগে পোস্ট গ্রাজুয়েশন করেছেন।
ডা. আরিফের বড় ভাই ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডা. সিদ্দিকুর রহমান গবাদি পশুর রোগের চিকিৎসার ভ্যাকসিন ব্রুসেলোসিস আবিষ্কার করেছেন, যা বিশ্বে প্রথম। কৃষি বিজ্ঞানে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তিনি তিনবার রাষ্ট্রপতি ও একবার প্রধানমন্ত্রীর পুরস্কারে ভূষিত হন।এছাড়া ডা. আরিফের ভাতিজা মুবিন ইবনে মকবুল ডেন্টাল ভর্তি পরীক্ষায় এবছর জাতীয় মেধায় প্রথম হয়েছেন। তার সর্বমোট স্কোর ২৯২.৫। এটি ডেন্টালে এ যাবৎকালের সর্বোচ্চ স্কোর। একই সঙ্গে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিপরীক্ষায় ঘ ইউনিটেও তিনি প্রথম হন। সেই সঙ্গে ঢাকা মেডিকেল, বুয়েট ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়েও ভর্তি পরীক্ষায় মেধা তালিকায় স্থান করে সারা দেশে আলোচিত হন।

যে গবেষণায় পুরস্কার পাচ্ছেন ডা. মোহাম্মদ আরিফ হোসেন আলোচিত এই পুরস্কার জিতেছেন ফেব্রী রোগ নামক এক ধরনের জেনেটিক লাইসোসোমাল রোগের pathophysiology তে গবেষণাপত্র প্রকাশের জন্য।ওয়ার্ল্ড সিম্পোজিয়া ওয়েবসাইটের তথ্যানুযায়ী, প্রতি বছর ফেব্রুয়ারিতে চারদিন ব্যাপী বিজ্ঞানীদের এই বিশ্ব সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় আমেরিকার ফ্লোরিডা অথবা ক্যালিফোর্নিয়াতে। এবছর সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হবে ফ্লোরিডা রাজ্যের ওরল্যান্ডের হায়াত রিজেন্সি হোটেলে ১০-১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০-এ।প্রতিবছর প্রায় দুই থেকে তিন হাজার বিশ্ববিখ্যাত লাইসোসোমাল রোগ বিশেষজ্ঞের উপস্থিতিতে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রায় ৫০০-৬০০ গবেষণা পত্র উপস্থাপিত হয়।যুক্তরাষ্ট্র থেকে এমন সম্মাননা পাওয়ার প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে সোমবার রাতে ই-মেইল বার্তায় যুগান্তরকে ডা. আরিফ হোসেন বলেন, কাজের স্বীকৃতি পেলে অবশ্যই অনেক ভাল লাগে। আমি এত বড় একটা সম্মেলনে এত বড় বড় বিজ্ঞানীদের সামনে প্লাটফর্মে দাঁড়িয়ে আমার গবেষণা উপস্থাপন করতে পারব এটা ভেবেই আমি খুব শিহরিত। তবে সত্যি কথা বলতে কি আমি যদিও বাংলাদেশী, কিন্তু আমি উপস্থাপন করতে যাচ্ছি জাপানকে। যদি নিজের দেশকে উপস্থাপন করতে পারতাম তাহলে আরও ভাল লাগত’।

মালয়েশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিপি নির্বাচিত হলেন বাংলাদেশি হাফেজ বশির

মালয়েশিয়ার অন্যতম বৃহৎ বিশ্ববিদ্যালয় মাসা ইউনিভার্সিটির ‘স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল’ (এসআরসি) নির্বাচনে ভাইস প্রেসিডেন্ট (ভিপি) পদে নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশের শিক্ষার্থী হাফেজে কোরআন বশির ইবনে জাফর। ২০২০ সেশনের জন্য অনুষ্ঠিত এই নির্বাচনে ভিপি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বশিরসহ মোট নয়জন।বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) অনুষ্ঠিত নির্বাচনে আট প্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে ৬৮৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন বাংলাদেশি এই শিক্ষার্থী।মালয়েশিয়ার প্রধান প্রধান বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ডাকসুর মতো স্টুডেন্ট রিপ্রেজেন্টিটিভ কাউন্সিল (এসআরসি) নির্বাচনের আয়োজন করা হয়। স্থানীয় শিক্ষার্থীদের জন্য প্রেসিডেন্ট পদটি সংরক্ষিত রেখে বাকি আরও আটটি পদ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এই এসআরসি নির্বাচনের আয়োজন করে।বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রকৌশল বিভাগে অধ্যয়নরত বশির ইবনে জাফরের বাড়ি কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়। কওমি মাদরাসা ও কলেজে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি কোরআনে কারিমের হাফেজ। রাজধানীর দনিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাসের পর স্কলারশিপ নিয়ে মালয়েশিয়ায় পড়াশোনা করতে যান তিনি।

জুমা শেষে উত্তাল দিল্লি জামে মসজিদ, ভীম সেনা প্রধান আটক

ভারতের বিতর্কিত ও মুসলিমবিরোধী নাগরিক আইনের প্রতিবাদে পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে শুক্রবার বাদ জুমা বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে দিল্লি জামে মসজিদ প্রাঙ্গণ।পুলিশের বাধাকে উপেক্ষা করেই ভীম সেনা প্রধান চন্দ্রশেখর আজাদ দিল্লি জামে মসজিদ এলাকায় ওই বিক্ষোভের নেতৃত্ব দেন। বিক্ষোভকে ঘিরে এলাকায় চরম উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।মসজিদের মূল ফটকের কাছে সংবিধানের প্রতিলিপি হাতে বিক্ষোভে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে শোনা যায় ভীম সেনা প্রধান চন্দ্রশেখরকে। পরে আটক করা হয় তাকে।এদিকে গোটা এলাকায় ড্রোন ক্যামেরা দিয়ে নজরদারি চালাচ্ছে দিল্লি পুলিশ। জুমা মসজিদ, চাওরি বাজার এবং লাল কেল্লা মেট্রো স্টেশনগুলিতে ঢোকা ও বেরোনোর দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এবং ট্রেনগুলি সেখানে থামবে না, জানিয়েছে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেশন (ডিএমআরসি)।

ইমরান খান না এলেও মাহাথিরের ডাকে সাড়া দিলেন এরদোগান

সৌদি আরবের চাপে শেষ পর্যন্ত ‘কুয়ালালামপুর সামিটে’ অংশ নিচ্ছেন না পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। যদিও সম্মেলনে অংশ নিতে এরই মধ্যে মালয়েশিয়া পৌঁছেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তায়্যেপ এরদোগান। এরদোগান প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মাদ ছাড়াও ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সঙ্গে তার বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) রাতে প্রেসিডেন্ট এরদোগান আঙ্কারা থেকে কুয়ালালামপুর পৌঁছান। চারদিনের এ সম্মেলনে মুসলিম বিশ্বের সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মতবিনিময় করা হবে।

সম্মেলনে ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ও কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আলে সানি ছাড়াও ইন্দোনেশিয়ার প্রেসিডেন্ট জুকো উইদোদোও অংশ নিচ্ছেন।গত ১৮ ডিসেম্বর শুরু হওয়া ‘কুয়ালালামপুর সামিট-২০১৯’ চলবে আগামী ২১ ডিসেম্বর পর্যন্ত। এবার সম্মেলনটির এজেন্ডা হিসেবে নির্ধারিত হয়েছে- উন্নয়ন ও সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা ও সুশাসন, ন্যায়বিচার ও স্বাধীনতা, সংস্কৃতি ও পরিচয়, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ, শান্তি-সুরক্ষা ও প্রতিরক্ষা এবং প্রযুক্তি ও ইন্টারনেট ব্যবস্থাপনার মতো সাতটি বিষয়।এ দিকে মালয়েশিয়ায় অনুষ্ঠেয় এই সম্মেলনে অংশ নিতে না পারার কথাটি চিঠির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী মাহাথিরকে জানিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মঙ্গলবার (১৭ ডিসেম্বর) মালয় প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরথেকে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

বিশ্লেষকদের মতে, সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে চলতি সপ্তাহে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিশেষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। মূলত এর পরপরই পাকিস্তানের পক্ষ থেকে সম্মেলন বাতিলের সিদ্ধান্তটি নেওয়া হয়। চলতি বছরের মে মাসের পর থেকে এখন পর্যন্ত এই দুই নেতা টানা চারবার সাক্ষাৎ করেছেন।অপর দিকে মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে শুরু হওয়া এই সম্মেলনে সৌদি আরবকে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি। বৈঠকে বিশ্বের মোট ৫২টি রাষ্ট্রের প্রায় চার শতাধিক মুসলিম নেতা ও বুদ্ধিজীবীরা উপস্থিত থাকবেন।পাক প্রধানমন্ত্রীর এই সফর বাতিলের বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রধানমন্ত্রী মাহাথির বলেছেন, ‘এটা তার (ইমরান খান) পছন্দ। আমরা কখনোই তাকে জোর করতে পারি না। কেননা ইসলামে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। ব্যক্তিগত কোনো কারণে তিনি হয়তো আসতে পারছেন না।’

এবার একসঙ্গে ইসরায়েলে হামলা চালাবে হামাস ও ইসলামিক জিহাদ

ফিলিস্তিনের ইসলামিক জিহাদ এবং প্রতিরোধ সংগঠন হামাস ইসরায়েল বিরোধী হলেও দুটি সংগঠন আগে কখনোই এক হয়নি।সবসময় আলাদাভাবে সংঘর্ষে জড়িয়েছে তারা। এমনকি মাঝেমধ্যেই ইসলামিক জিহাদের সমালোচনাও করত হামাস।অবশেষ নিজেদের মধ্যকার দূরত্ব ভুলে এক হতে যাচ্ছে ফিলিস্তিনি এই দুই সংগঠন। ইসরায়েলে হামলার লক্ষ্যে তারা এক হচ্ছে বলে যানা গেছে।ফিলিস্তিনি ইসলামিক জিহাদের (পিআইজে) সাধারণ সম্পাদক জিয়াদ আল নাখলাহ বলেছেন, ইসরায়েলের বিরুদ্ধে পরবর্তী যুদ্ধে এক হয়ে লড়বে হামাস-পিআইজে।জেরুজালেমভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য জেরুজালেম পোস্ট জানায়, ইসরায়েলের সঙ্গে পরবর্তী যুদ্ধে একসঙ্গে লড়বে ইসলামিক জিহাদ ও হামাস। বৃহস্পতিবার পিআইজে-এর সাধারণ সম্পাদক জিয়াদ আল নাখলাহ এই তথ্য জানান।ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে এরই মধ্যে চুক্তি করেছে হামাস ও ইসলামিক জিহাদ।

এ সম্পর্কে জিয়াদ আল নাখলাহ বলেন, আমরা একটি চুক্তি করেছি। এই চুক্তির আওতায় ইসরায়েলের যে কোনো হামলার জবাব যৌথভাবে দেওয়া হবে। তিনি ইসরায়েলকে সতর্ক করে বলেন, ইসরায়েল গাজা উপত্যকায় কোনো হামলা চালালে তার জবাব না দিয়ে ছাড়া হবে না।

দুইশত প্রতিযোগীকে হারিয়ে তুরস্কে প্রথম হলেন বাংলাদেশি তরুণ হাসান কবির

ইসলামিক কো-অপারেশন ইয়ুথ ফোরাম কর্তৃক আয়োজিত “আইসিওয়াইএফ রমজান ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতায় ২০১৯”-এ প্রথম স্থান অর্জন করেছেন বাংলাদেশি তরুণ মুহাম্মদ হাসান কবির।তিনি বিভিন্ন মুসলিম দেশের প্রায় দুইশত প্রতিযোগীর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে দেশের জন্য এ সম্মান বয়ে এনেছেন। মুহাম্মদ হাসান কবির বর্তমানে তুরস্কের সেলজুক বিশ্ববিদ্যালয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবংজনপ্রশাসন বিষয়ে অধ্যয়রত মুহাম্মদ হাসান কবির লোহাগাড়া উপজেলার চুনতি নারিশ্চা গ্রামের আল্লামা ফৌজুল কবিরের পুত্র। লোহাগাড়া উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান এম. ইব্রাহিম কবির ওমরক্কোর আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয় আগাদীর’র আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের পরিচালক ও সহকারী অধ্যাপক এবং গ্লোবাল পীস প্লানেট (জিপিপি)-এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মাহীর ছোট ভাই।মুহাম্মদ হাসান কবির বলেন, ‘আইসিওয়াইএফ রমজান ফটোগ্রাফি প্রয়োগিতায় ২০১৯’-এ প্রথম স্থান অর্জন করায় মহান আল্লাহর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এছাড়াও যারা দোয়া ও সমর্থন করেছেন তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানাই।