খুলনায় যুবক হত্যায় পাঁচজনের যাবজ্জীবন

খুলনার পাইকগাছা উপজেলায় হারুন হত্যা মামলায় ১২ বছর পর পাঁচ যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

সোমবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রথম আদালতের বিচারক মো. ইয়ারব হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ইলিয়াছ খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন- মিজানুর রহমান ওরফে মন্টু (২৮), আমির সরদার (২৫), মিজানুর রহমান ওরফে চ্যাংড়া মিজান (২২), হাসান গাজী (২৪) ও লুৎফর শেখ (৩০)।

আইনজীবী এম ইলিয়াছ খান জানান, ২০০৬ সালের ২৫ ডিসেম্বর রাতে পাইকগাছার খ্রিস্টানপাড়া থেকে নিখোঁজ হন উপজেলা সদরের ইদ্রিস আলীর ছেলে হারুন-অর রশিদ (২২)। পরে ২০০৭ সালের ১০ জুন সকালে পাইকগাছার উত্তরপাড়ায় একটি স্কুলের সেফটিক ট্যাংকে হারুনের গলিত লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় হারুনের মা রিজিয়া বেগম থানায় হত্যা মামলা করেন। ওই বছরের ২৭ জুন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পাইকগাছা থানার তৎকালীন উপপরিদর্শক আইবুল হক আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেন।

মামলায় ২২ সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আজ পাঁচজনকে যাবজ্জীবন দিলেন আদালত।