Monday, May 27News That Matters

একাধিক বিয়ে না করলে বান্দা গুনাহগার হবে: সৌদি মুফতী

সৌদি আরবের সিনিয়র মুফতি আব্দুল্লাহ বলেছেন, সামর্থ্য থাকার পরও যদি কোনো মুসলমান একাধিক বিয়ে না করে, তাহলে সেই পুরুষ গুনাহগার হবে। এক টিভি সাক্ষাৎকারে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

সৌদি আরবের সিনিয়র মুফতি আবদুল্লাহ তার আলোচনায় বলেছেন, যে ব্যক্তির একাধিক বিয়ের সামর্থ্য আছে এবং সে সমাজের মুসলিম নারীদের দুর্দশা সম্পর্কেও অবগত আছে যে- মুসলিম নারীগণ বিবাহিত জীবন লাভ না করায় ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়ছে- সে পুরুষ অবশ্যই গুনাহগার হবে।

আমি মনে করি, এমন ব্যক্তি এক স্ত্রীতে সন্তুষ্ট থাকলে গুনাহগার হবে এবং কেয়ামতের দিন সে প্রশ্নের মুখোমুখি হবে যে, ‘তোমার সামর্থ্য থাকার পরও কেনো তুমি অপর মুসলিম নারীর পবিত্র ও নিরাপদ জীবনযাপনের ব্যবস্থা করলে না?’

মুফতি আব্দুল্লাহ ব্যাখ্যা করে বলেন, বহুবিবাহ না করায় ব্যপকহারে অবিবাহিত মেয়ে রয়ে গেলে সমাজে ব্যাভিচার বেড়ে যাবে। কোন স্ত্রী যদি স্বামীর পরবর্তী বিবাহে বাধা দেয়, তাহলে অন্য মেয়ের অভিশাপ ১ম স্ত্রীর উপর পড়বে। কারন পুরুষের দেহকে ৪ জন পর্যন্ত নারী ভোগ করতে পারতো, এক স্ত্রী হয়ে তুমি বাকি ৩ নারীর যৌন অধিকার কেন নষ্ট করলে? একজন পুরুষের দেহে সব্বোর্চ্চ ৪ জন নারীর অধিকার আছে। শুধু একজনের নয়। পুরুষতো নারীর মতো নয়, তাই পুরুষের বেলায় হুকুমত নারীর মতো হবে না।

মুফতি আব্দুল্লাহ বলেন, আল্লাহ যদি কোন নারীকে প্রশ্ন করেন, এত এতো যুবক হস্তমৈথুনের মতো গুনাহের কাজে অভ্যস্ত ছিল, হতাশায় ছিল। তুমি কেন ২/৩টি বিয়ে করে তাদের উদ্ধার করলে না? তখন নারী বলবে, হে আমার রব, আমার জন্যে একসাথে বহু পুরুষকে বিবাহ করা জায়েজ করেননি আপনি। অপরপক্ষে কোনো পুরুষর এ কথা বলে বাঁচতে পারবে না।

এছাড়া বহু বিবাহের অনুপ্রেরনা কোরআনে না থাকলে সাহাবীরা কখনও বহুবিবাহ করতেন না এবং উৎসাহ দিতেন না- বলে মন্তব্য করেন সৌদি আরবের এই সর্বোচ্চ ধর্মগুরু।

আনার মন্তব্য দিন