সাংসদ মোসলেম উদ্দিন সহ পরিবারের ১০ সদস্য করোনায় আ’ক্রা’ন্ত

banglarjay1banglarjay1
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:05 AM, 12 June 2020

নিউজ ডেস্ক : প্রা’ণঘা’তী করোনাভাইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন। তিনিসহ তার পরিবারের ১০ সদস্যের শরীরে করোনাভাইরাসের সং’ক্র’মণ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে তার স্ত্রী, ছেলে নাতিসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা রয়েছেন।

বুধবার (১০ জুন) রাতে চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সা’র্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি এ ত’থ্য নি’শ্চিত করেন। তিনি বলেন, পরিবারের ১০ সদস্যসহ চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দিন করোনাভাইরাসে আ’ক্রা’ন্ত হয়েছেন। স্ত্রী, ছেলে নাতিসহ পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা রয়েছেনজেলা সিভিল সা’র্জন জানান, বুধবার দিবাগত রাত ১টায় ফৌজদারহাটের বিআইটিআইডি ল্যা’বের প্রকাশিত ফলাফলে এ ত’থ্য জানা যায়। এ সংসদ সদস্যসহ বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের এক সদস্য এবং এক চিকিৎসক করোনায় আক্রা’ন্ত হয়েছেন।

জানা গেছে, গত ৯ জুন বোয়ালখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের একটি টিম নগরের লালখান বাজারের বাসা থেকে ওই পরিবারের ১৫ সদস্যের ন’মু’না সংগ্রহ করেন। তাদের মধ্যে ৫ জনের ফলাফল নেগেটিভ আসলেও বাকি ১০ জনেই পজিটিভ।এর আগে বাঁশখালীর সংসদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান পরিবারের ১১ সদস্যসহ করোনা আ’ক্রা’ন্ত হন। এ নিয়ে চট্টগ্রামের দ্বিতীয় কোনো সংসদ সদস্য ও তার পরিবারে সদস্যদের করোনা শ’না’ক্ত হলো।রাউজান : দুই দিন আগে মা মা’রা গেছেন। তিন দিনের মাথায় করোনাভাইরাস আক্রা’ন্ত হয়ে মারা গেলেন ছেলে। রাউজান পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের এক পরিবার এই মর্মা’ন্তিক ঘটনার শি’কার হয়েছেন। করোনায় মা’রা যাওয়া মো. দিদারুল আলম (৭০) রাউজান পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের ডেপুটি বাড়ির মরহুম আবু তাহের চৌধুরীর দ্বিতীয় ছেলে। তিনি প্রাইম ব্যাংকের সাবেক ভিপি ছিলেন।

মৃ’ত দিদারের আত্মীয় হামিদুল ইসলাম টিটু, রহুল আমিনসহ পরিচিতজনেরা জানান, করোনা আক্রা’ন্ত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ বুধবার সকাল ৬টার দিকে মা’রা যান দিদার। মরহু’ম দিদাররা ২ ভাই, ৫ বোন। দিদার ৪ সন্তানের জনক ছিলেন। দা’ফনে উপস্থিত থাকা স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর জানে আলম জনি বলেন, ‘আছড়ের নামাজের আগে আল মানাহিল ওয়েল ফেয়ার ফাউন্ডেশনের কর্মিরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে জানাজাশেষে রাউজানের গ্রামের বাড়িতে মায়ের কব’রের পাশেই দিদারকে দা’ফন করেন।

দিদারের নিকটত্মীয়রা জানান, দুই দিন আগে ডায়াবেটিক ও হার্টের সমস্যায় ভু’গে বার্ধক্যজনিত কারণে সোমবার মা’রা যান দিদারের বৃদ্ধ মা জোবেদা বেগম। তিন দিনের ব্যবধানে তার দ্বিতীয় ছেলে দিদার করোনাভাইরাস আক্রা’ন্ত হয়ে মা’রা গেলেন। এই ঘটনায় ওই পরিবার ও প্রতিবেশীদের মাঝে শো’কের ছায়া নেমে এসেছে।

আপনার মতামত লিখুন :