মেয়ের ধ’র্ষণকারীর শাস্তি চেয়ে রাস্তায় বাবা

banglarjay1banglarjay1
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:33 AM, 12 June 2020

রাজশাহীর পুঠিয়ায় ধ’র্ষণের শি’কার ইভা খাতুনের (১২) আত্মহ’ত্যার দুই মাস পেরিয়ে গেলেও আসামিদের আ’টক করতে পারেনি পুলিশ। এ ঘটনায় বিচারের দাবি নিয়ে অবশেষে রাস্তায় নেমেছেন তার হতভাগা বাবা।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের সামনে ইভা খাতুনের পিতা ভ্যানচালক সেলিম হোসেনকে বিচারের আশায় মেয়ের ছবি সম্বলিত একটি ব্যানার নিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

ভ্যানচালক সেলিম হোসেন বলেন, ‘আমার মেয়ে পুঠিয়া বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির মেধাবী ছাত্রী ছিল। তার মারা যাওয়ার প্রায় দুই মাস পেরিয়ে গেছে। লোকমুখে শুনেছি আসামি মাঝে মধ্যে প্রকাশ্যে তার এলাকাতে ঘুরছে।

কিন্তু পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছেন না। আমি গরিব মানুষ তাই হয়তো মেয়ের ওপর নি’র্যাতন ও তার আত্মহ’ত্যার প্ররোচনাকারীদের সঠিক বিচার পাবো না। তাই নিজেই বিচারের দাবি নিয়ে রাস্তায় নেমেছি।’

এ ব্যাপারে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান, মামলার তদারকিতে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনও গাফিলতি নেই।

আসামিদের গ্রেফতার করতে আমরা বিভিন্নভাবে চেষ্টা করছি। আর ওই পরিবারকে বলা হয়েছে আসামিদের সন্ধান পেলে আমাদের জানাতে।

প্রসঙ্গত, এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে ইভা তার বড় ভগ্নিপতি উপজেলার হলহোলিয়া গ্রামের এখলাস আলীর বাড়িতে বেড়াতে যায়। এই সুযোগে এখলাস আলী জুসের মধ্যে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে অচেতন অবস্থায় ইভাকে ধ’র্ষণ করে।

পরে ৯ এপ্রিল দুপুরে রামজীবনপুর গ্রামের নিজ বাড়ি ফিরে লোকলজ্জায় ঘরের আড়ার সঙ্গে গলায় ফাঁস দিয়ে ইভা আত্মহ’ত্যা করে। এ ঘটনায় এখলাস আলী ও তার পিতা-মাতাকে আসামি করে পুঠিয়া থানায় মামলা দায়ের করা হয়।করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারিতে ইউরোপ-আমেরিকায় ভেন্টিলেশন-পিপিই’র সংকট দেখা দিলেও বাংলাদেশে এ ধরনের পরিস্থিতি দেখা দেয়নি বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের সংকটে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে হোয়াইট হাউসের সামনে ও অন্যান্য অঙ্গরাজ্যে পিপিই’র জন্য বিক্ষোভ হয়েছে। কানাডায় ও ইউরোপের বিভিন্ন দেশে মাস্কের সংকট ছিল।

আমাদের দেশে এ ধরনের সংকট হয়নি বরং দু’দিন আগে নাইজেরিয়া বিমান পাঠিয়ে বাংলাদেশ থেকে ওষুধ, পিপিই ও অন্যান্য চিকিৎসাসামগ্রী নিয়ে গেছে। আমরা এসব সুরক্ষাসামগ্রী মালদ্বীপেও পাঠিয়েছি।

মঙ্গলবার (৯ জুন) তথ্য মন্ত্রণালয়ের নিজ দফতর থেকে ভিডিও কনফারেন্সে চট্টগ্রামের ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালে ১০০ শয্যার কোভিড ইউনিট উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও চট্টগ্রামের সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন বিশেষ অতিথি হিসেবে ভিডিও কনফারেন্সে বক্তব্য রাখেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরুতে সারা পৃথিবীতে ভেন্টিলেশন ইউনিটের সংকট ছিল।

একারণে ইউরোপ-আমেরিকার দেশগুলোতে ৬৫ বা তার চেয়ে বেশি বয়সের মানুষের চেয়ে অপেক্ষকৃত তরুণদের ভেন্টিলেশন ইউনিটের মাধ্যমে চিকিৎসার অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছিল।

তবে আমাদের দেশে এ ধরনের সংকট হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘করোনার প্রাদুর্ভাবে সরকার জনগণের পাশে দাঁড়ানোর পাশাপাশি অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলায় যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছে। চিকিৎসায় নিয়োজিতদের সুরক্ষা সামগ্রী দিয়ে পাশে দাঁড়িয়েছে।

এ সত্ত্বেও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও ইন্টারনেটে অনেক সময় নানা গুজব ও অপপ্রচার দেখা যায়।

কিন্তু করোনাভাইরাসসহ যেকোনও বিষয়ে গুজব, আতঙ্ক বা অপপ্রচার ছড়ানো ফৌজদারি অপরাধ, যা শাস্তিযোগ্য। ইতোমধ্যে এ ধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং ভবিষ্যতে ঘটলেও সরকার ব্যবস্থা নেবে।’

ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালে ১০০ শয্যার কোভিড ইউনিট উদ্বোধনের পর আগাম সতর্কতা হিসেবে চট্টগ্রামে আরও কয়েকটি কমিউনিটি সেন্টারকে স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রে রূপান্তরের জন্য সিটি মেয়রকে অনুরোধ জানান মন্ত্রী।

মন্ত্রী এ সময় করোনা ইউনিট চালুর জন্য ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানান এবং ইউএসটিসি’র প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জাতীয় অধ্যাপক নুরুল ইসলামকে শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন।

সদ্য স্থাপিত ১০০ শয্যার কোভিড ইউনিটটি পুলিশ ও সাংবাদিকদের অগ্রাধিকারসহ সর্বসাধারণের চিকিৎসার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এ সময় চট্টগ্রামের হাসপাতালগুলোতে স্বাস্থ্য উপকরণ ও বাইরে ঔষধালয়গুলোতে প্রয়োজনীয় ওষুধের জোগান নিশ্চিত করার ওপর জোর দেন।

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপপ্রচার রোধে সাংবাদিকদের সহায়তা চান।

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার এবিএম আজাদের সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব আহমদ কায়কাউস, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন, পুলিশের ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. বেনজীর আহমেদ ও ইউএসটিসি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের পক্ষে ট্রাস্টি বোর্ড সদস্য প্রকৌশলী নূর-ই জান্নাত আয়েশা ইসলাম দীনা ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন।

আপনার মতামত লিখুন :