৩ হাসপাতালে ঘুরে আইসিইউ না পেয়ে অ্যাম্বুলেন্সেই সদ্য ‘মা’ হওয়া তরুণীর মৃত্যু

banglarjay1banglarjay1
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  02:11 PM, 13 June 2020

শ্বাসকষ্ট ভুগছিলেন তিনি। তাই করোনাভাইরাসে আক্রান্তের ভয়ে তাকে ভর্তি নেয়নি কোনো হাসপাতাল। অবশেষে রাজধানীর তিন হাসপাতাল ঘুরে আইসিইউ না পেয়ে অ্যাম্বুলেন্সেই মৃত্যু হয়েছে সদ্য ‘মা’ হওয়া ওই তরুণীর। মাত্র ১ সপ্তাহ আগে ইসরাত জাহান উষ্ণ নামের ওই তরুণী এক মেয়ে সন্তানের জন্ম দেন।
null

null

null
জানা গেছে, গতকাল শুক্রবার সকাল থেকে প্রথমে মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতাল, এরপর ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, সেখান থেকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়া হয় ইসরাত জাহান উষ্ণকে। কিন্তু কোনো হাসপাতালে আইসিইউ না পেয়ে বিকেল ৩টার দিকে অ্যাম্বুলেন্সেই তার মৃত্যু হয়।
null

null

null
এদিকে, তিন হাসপাতাল ঘুরে আইসিইউ না পেয়ে ওই তরুণীর মৃত্যুর জন্য মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালকে দায়ী করেছেন উষ্ণের দুলাভাই বুয়েটের সিনিয়র সহকারী লাইব্রেরীয়ান ইসমাইল হোসেন।
null

null

null
তিনি জানান, গত ৬ জুন সিজারের মাধ্যমে মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালে একটি মেয়ে সন্তান জন্ম দেন উষ্ণ। পরে ১১ জুন তাকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেয়। সেখান থেকে সোনারগাঁওয়ের আলমদীর বাড়িতে গেলে শুক্রবার সকালে তার খিঁচুনি উঠে মুখ দিয়ে লালা বের হতে থাকে। দ্রুত তাকে পুনরায় মাতুয়াইল শিশু মাতৃসদন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।
null

null

null
কিন্তু হাসপাতালের চিকিৎসকরা তাকে আইসিইউর দোহাই দিয়ে কোনো চিকিৎসা দেয়নি। সেখান থেকে উষ্ণকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল প্রেরণ করে। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তার অবস্থার অবনতি হতে থাকে। ঢামেকেও আইসিইউ খা‌লি না থাকায় তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নেওয়ার পথে অ্যাম্বুলেন্সেই সে মারা যায়, যোগ করেন ইসমাইল হোসেন।
null

null

null
ইসরাত জাহান উষ্ণ বারদী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৬ সালে ব্যবসায় শিক্ষা শাখা থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়। বর্তমানে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত ৭ কলেজের আওতায় কবি নজরুল কলেজে হিসাববিজ্ঞান বিষয়ে অধ্যায়নরত ছিলেন। সোনারগাঁওয়ের বারদী ইউনিয়নের আলমদী গ্রামের ওয়াহিদ ভূইয়ার মেয়ে উষ্ণ।

আপনার মতামত লিখুন :